মাত্র ৭ মাসে কুরআনের হাফেজ হল কিশোরী

মাত্র ৭ মাসে কুরআনের হাফেজ হল কিশোরী

হাদিল সাইয়্যিদ ১২ বছরের এক কিশোরী।বসবাস জর্ডানে। মাত্র ৭ মাসে পবিত্র কুরআনে কারিম হেফজ করতে সক্ষম হয়েছেন।  তার এমন কীর্তি নিয়ে জর্দানের পত্রিকায় প্রকাশিত হচ্ছে নানা প্রতিবেদন।

হাদিল সাইয়্যিদ আল সিদাভির ঘটনা সবাইকে বিস্মিত করছে। ইতোমধ্যেই সে সবার আকর্ষণের কেন্দ্রবিন্দুতে পরিণত হয়েছে।

হাদিল সাইয়্যিদ জর্ডানের আল রামসা শহরের আবিদাজানা নামক একটি মাদরাসার ছাত্রী।  সে নিজের দৃঢ় চেষ্টা ও কঠোর অধ্যবসায়ের মাধ্যমে মাত্র ৭ মাসে সম্পূর্ণ কুরআন হেফজ করতে সক্ষম হয়েছে।

কুরআন হেফজের ব্যাপারে হাদিলের মন্তব্য হলো, ‘আমি যখন আবিদাজানা মাদরাসায় ভর্তি হয়ে পড়তে যাই, তখন মাত্র ৩ পারা কুরআন আমার মুখস্থ ছিল।  কিন্তু সেখানকার শিক্ষকদের উৎসাহের ফলে স্বল্প সময়ের মধ্যে পুরো কুরআন হেফজ করতে সক্ষম হই।  আমি আসলে জানি না, কীভাবে কী হয়েছে।  শুধু এতটুকু বলতে পারি, আমি ক্লান্ত হইনি, কুরআন মুখস্থ করতে আনন্দ পেয়েছি।  আমি আনন্দে আনন্দে মুখস্থ করেছি।

জর্ডানের এ কিশোরী হাফেজের ইচ্ছা ভবিষ্যতে কোরআনের শিক্ষক ও গবেষক হওয়ার।

উল্লেখ্য, এর পূর্বে জর্ডানে ৮ বছরের নুর আবুল লাইল নামের এক কিশোর সম্পূর্ণ কুরআন হেফজ করে সে দেশের সর্বকনিষ্ঠ হাফেজের খ্যাতি অর্জন করেছেন।  হাদিলের বিষয়ে সংশ্লিষ্ট শিক্ষা অফিস সিদ্ধান্ত নিবে খুব দ্রুত।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

12 − 3 =